যা করলে দাম্পত্য সম্পর্কের আয়ু বাড়ে

প্রেমের সম্পর্ক থেকে হয়তো বিয়ে করেছেন। সংসার ও কর্মজীবনের বাইরে একটি কাজ করতে আমরা হয়তো ভুলে যাই। তা হলো সঙ্গীর হাতে হাত রাখা। সঙ্গীর হাতে হাত রেখে নিজেরদের সুখ-দু:খ আলাপ করুন। এতে নাকি সম্পর্কের আয়ু বাড়ে।

আর মানসিক চাপ বা স্ট্রেস অনেকটাই কমিয়ে দিতে পারে। নতুন একটার সমীক্ষার প্রতিবেদন এমন একটি তথ্য জানিয়েছে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার এক সমীক্ষায় এমন তথ্য উঠে এসেছে। সমীক্ষার প্রতিবেদন বলছে, সঙ্গীর হাত রাখলে ভালোবাসার প্রকাশ ঘটে। ফলে পারস্পারিক ভালোবাসাও বেড়ে যায়।

পরস্পরের হাত ধরায় নিজেদের প্রতি আস্থা ও ভরসার কথা বুঝিয়ে দেওয়া হয়। যদিও মুখে অনেক বিষয় বলা যায় না। আর একজন আরেক জনের হাত স্পর্শ করেই একজনের আবেগ অন্যজনের মধ্যে সঞ্চারিত করা যায়।

গবেষকরা বলছেন, সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় কয়েকজনকে বলা হয়েছিল, মুখে কোনো কথা না বলে সঙ্গীর হাত স্পর্শ করে সঙ্গীকে বোঝাতে যে তিনি কী বলতে চাইছেন। এতে দেখা গেছে, ৭৫ শতাংশই একেবারে সঠিক উত্তর দিয়েছে।

একে অপরের হাত ধরলে আমাদের শরীরে ‘লাভ হরমোন’ নিঃসরণ ঘটে। এর ফলে শারীরিক সম্পর্কের ক্ষেত্রেও একজন আরেক জনের জন্য সক্রিয় হয়ে ওঠে।

গবেষণা বলছে, আপনি যদি ভয় পান তবে সঙ্গীর হাত ধরেন। তাহলে মানসিক চাপ কমে এবং নিজেকে নিরাপদ মনে হবে। পরস্পরের হাত ধরলে রক্ত সঞ্চালন বাড়ে ও শারীরিক ব্যথা-বেদনাও অনেকটা কমে। এছাড়া হৃদযন্ত্রও ভালো থাকে।

Comments

comments

You might also like